সরকারবিরোধী বিক্ষোভ ও পাল্টাপাল্টি সরকারি গণজমায়েতের পর ফের সামাজিক মাধ্যমে অজ্ঞাতপরিচয় পোস্ট থেকে সারা ইরান জুড়ে শনিবার আরো বিক্ষোভের ডাক দেয়া হয়েছে। যদিও সরকারবিরোধী বিক্ষোভের ব্যাপারে কড়া হুঁশিয়ারি দিয়ে রেখেছে ইরানের কর্তৃপক্ষ।
ইরানের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে জারি করা এক নির্দেশে এ ধরণের কোনো বিক্ষোভে অংশ না নেয়ার জন্য জনগণকে সতর্ক করে দিয়ে বলা হয়েছে, এই বিক্ষোভ অবৈধ। হাজার হাজার মানুষ গত কয়েকদিন ধরে বিভিন্ন শহরের বিক্ষোভে অংশ নেয়, যা মূলত জিনিসপত্রের দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদ জানাতে শুরু হলেও পরে সরকারবিরোধী বিক্ষোভে পরিণত হয়। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আজ শনিবার আরো অনেক বিক্ষোভের ভিডিও পোস্ট করা হয়, যাতে দেখা যাচ্ছে বিভিন্ন শহরে খণ্ড খণ্ডভাবে লোকজন এতে যোগ দিচ্ছে। তেহরানের একেবারে কেন্দ্রে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসেও বিক্ষোভ হতে দেখা যাচ্ছে।
বিক্ষোভকারীরা ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আলি খামেনি এবং সেখানে ইসলামী বিপ্লবের নেতাদের ক্ষমতা ছাড়ার দাবি জানিয়ে শ্লোগান দিচ্ছে। তবে রাষ্ট্রীয় প্রচারমাধ্যমের খবরে দাবি করা হচ্ছে, আজ সরকারের সমর্থনে হাজার হাজার মানুষ মিছিল করেছে। সরকারের সমর্থকরা আজ মাঠে নেমেছে এবং সরকার নিয়ন্ত্রিত টেলিভিশন চ্যানেলে দাবি করা হচ্ছে, হাজার হাজার মানুষ সরকারের পক্ষে মিছিলে যোগ দিয়েছে। যেভাবে গত কয়েকদিনে ইরানে সরকারবিরোধী বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে, তা সরকারকে কিছুটা হতচকিত করে দিয়েছে। এই বিক্ষোভ কঠোরভাবে দমন করা হবে বলেও সরকার হুঁশিয়ারি দিচ্ছে। এর বিপরীতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পও এই বলে ইরানকে হুঁশিয়ার করে দিয়েছেন যে, কিভাবে সেখানকার সরকার এই বিক্ষোভের মোকাবেলা করছে তার ওপর সারা দুনিয়া নজর রাখছে। বিবিসি।
Share Button