• শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ০৫:২১ পূর্বাহ্ন

সহিরন বেওয়ার ভাতার টাকা যায় ইউপি সদস্যের ছেলের ফোনে

নিউজ ডেস্ক
আপডেটঃ : মঙ্গলবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২৩

ঠাকুরগাঁওয়ে প্রতিবন্ধী ও বিধবা নারীর ভাতার টাকা আত্মসাৎ এবং গ্রামপুলিশকে নির্যাতনসহ নানা অভিযোগ তুলে স্থানীয় ইউপি সদস্য মো. ফারুক হোসেনের বিচার ও অপসারণের দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল করেছে গ্রামবাসী। মঙ্গলবার দুপুরে জেলার জামালপুর ইউনিয়নের ভগদগাজী বাজারে ঘণ্টাব্যাপী এই কর্মসূচি পালন করে স্থানীয়রা। মানবন্ধন চলাকালে বিধবা নারীরা ক্ষিপ্ত হয়ে ফারুক হোসেনের ছবি জুতা দিয়ে পেটায়।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, জামালপুর ইউনিয়নের ইউপি সদস্য ফারুক হোসেন বাক প্রতিবন্ধী সহিরন বেওয়ার ভাতার টাকা এক বছর যাবত আত্মসাৎ করে আসছে। এছাড়াও ওই ওয়ার্ডের আরও কয়েক নারীর বিধবা ও বয়স্ক ভাতা করে দেওয়ার নামে উৎকোচ গ্রহণ করে। কিন্তু তাদের ভাতার ব্যবস্থা আজও করে দিতে পারেনি।

অবিলম্বে ইউপি সদস্য ফারুক হোসেনকে তার পদ থেকে অপসারণ করে দৃষ্টান্ত শাস্তি দাবি করেন বক্তারা। পরে একটি বিক্ষোভ মিছিল স্থানীয় ভগদগাজী বাজার এলাকা প্রদক্ষিণ করে।

তবে অভিযোগ অস্বীকার করে ইউপি সদস্য ফারুক হোসেন বলেন, তার বিরুদ্ধে মিথ্যা অপপ্রচার করা হচ্ছে। তবে সহিরন বেওয়ার ভাতার টাকা ভুলবশত তার ছেলের মোবাইল নম্বরে এসেছে বলে স্বীকার করেন এবং টাকা ফেরত দেয়ার আশ্বাস দেন ইউপি সদস্য ফারুক হোসেন।

উল্লেখ্য, গত ১০ সেপ্টেম্বর প্রতিবন্ধী সহিরন বেওয়ার ভাতার টাকা ফেরত এবং দৃষ্টান্ত শাস্তি দাবি করে সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর লিখিত অভিযোগ করেন।

 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ