• বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৮:৪৩ অপরাহ্ন

বগুড়ার শাজাহানপুরের সেনা সার্জেন্ট খুনের রহস্য উদ্ঘাটন

আল ইসলাম কায়েদ
আপডেটঃ : রবিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৭

বগুড়া প্রতিনিধি॥ গত ২৯ নভেম্বর দিবাগত রাতে বগুড়া শাজাহানপুর উপজেলার শাকপালায় খুন হওয়া অবসরপ্রাপ্ত সেনা সার্জেন্ট খুনের রহস্য উদ্ঘাটন করা হয়েছে। এঘটনায় জড়িত ৪ জনকে আটক করা হয়েছে।

জানাযায়, শাজাহানপুর থানা পুলিশ গত ৩০ নভেম্বর ঘটনার সাথে জড়িত লাল মিয়া @ বিষু @ সম্রাটকে শজিমেক এলাকা থেকে আটক করে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে ঘটনার সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করলে তাকে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়। সে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দী প্রদান করে । কোর্টে প্রদত্ত বিবৃতি অনুসারে পুলিশ ঘটনার অংশ নেয়া আরো তিনজনকে আটক করে। তারা হলো শাকপালা এলাকার জিয়াউল হকের ছেলে রাকিব(২৫), একই এলাকার আব্দুল হালিম বগা এবং রবিউল। ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে তারা ঘটনা ঘটানোর কথা স্বীকার করে এবং কিভাবে ঘটনা ঘটিয়েছে তার বিস্তারিত বিবরণ দেয়। গত ১/১২/২০১৭ দিবাগত রাত দুটার দিকে শাজাহানপুর থানা পুলিশের একটি দল রাকিব এবং বগাকে নিয়ে আলামত উদ্ধারের জন্য ঘটনাস্থলে গেলে সেখানে পুর্ব থেকে অবস্থান করা তাদের সহযোগীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়। এ সময় রাকিব এবং বগা পুলিশের হেফাজত থেকে পালানোর চেষ্টা করলে গোলাগুলির মধ্যে পরে পায়ে গুলিবিদ্ধ হয়। পুলিশের তৎপরতায় দুস্কৃতিকারিরা পালিয়ে গেলে পুলিশ দ্রুত রাকিব এবং বগাকে উদ্ধার করে শজিমেক হাসপাতালের জরুরি বিভাগে ভর্তি করে। তারা এখন পুলিশ প্রহরায় শজিমেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এ সময় পুলিশের এএসআই তাহের, কনস্টেবল রেজাউল এবং রশিদ আঘাতপ্রাপ্ত হয়, তারা বর্তমানে পুলিশ লাইন হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছে। রাকিব এবং বগা এলাকায় চিহ্নিত ছিনতাইকারি হিসেবে পরিচিত এবং শাকপালার আমিনুল খুনসহ একাধিক মামলার আসামি। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে একটি ৭.৬৫ বিদেশি পিস্তল, তিন রাউন্ড তাজা গুলি, দুইটি গুলির খোসা এবং একটি চাকু উদ্ধার করেছে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে।

বগুড়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সনাতন চক্রবর্তী সংবাদটি নিশ্চত করেছেন।

Share Button


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ

You cannot copy content of this page

You cannot copy content of this page