• শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ০৫:৪৩ পূর্বাহ্ন

ইউক্রেন দ্বিতীয় পূর্বাঞ্চলীয় গ্রাম ক্লিশচিভকা পুনরুদ্ধার করেছে

নিউজ ডেস্ক
আপডেটঃ : সোমবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২৩

ইউক্রেন তাদের পূর্বাঞ্চলীয় গ্রাম ক্লিশচিভকা পুনরুদ্ধারের দাবি করেছে, যা রাশিয়ার সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে মাসব্যাপী পাল্টা আক্রমণে তিন দিনের মধ্যে ইউক্রেনের দ্বিতীয় উল্লেখযোগ্য অর্জন।

গ্রামটি বাখমুত থেকে প্রায় ৯ কিমি (৬ মাইল) দক্ষিণে উঁচু জমিতে অবস্থিত এবং কয়েক সপ্তাহ ধরে তীব্র লড়াই চলছিল সেখানে। খবর আল জাজিরার।

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি রবিবার জাতির উদ্দেশে ভিডিও ভাষণে বলেছেন, ‘আজ, আমি বিশেষভাবে সেই সৈন্যদের প্রশংসা করতে চাই যারা ধাপে ধাপে ইউক্রেনে ফিরে আসছে, যেমন বাখমুত এলাকায়।

কিয়েভ ছোট গ্রাম আন্দ্রিইভকার নিয়ন্ত্রণ পাওয়া এবং জেলেনস্কি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে তার দ্বিতীয় যুদ্ধকালীন সফরের প্রস্তুতির পর ক্লিশচিভকাতে এই অগ্রগতি হলো।

জেলেনস্কি বলেছেন, কিয়েভ বিমান প্রতিরক্ষা ও আর্টিলারিকে অগ্রাধিকার দিয়ে ইউক্রেনের জন্য নতুন প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা প্রস্তুত করছে। তিনি এর কোনো বিশদ বিবরণ দেননি।

ইউক্রেনের স্থলবাহিনীর কমান্ডার ওলেক্সান্ডার সিরস্কি, যিনি পাল্টা আক্রমণের অপারেশনাল নিয়ন্ত্রণে রয়েছেন, যুদ্ধের শব্দসহ ধ্বংসপ্রাপ্ত ভবনগুলোতে ইউক্রেনীয় সেনাদের নীল এবং হলুদ জাতীয় পতাকা প্রদর্শনের একটি ভিডিও পোস্ট করেছেন।

সিরস্কি, যিনি প্রায়ই কৌশল তৈরি করতে এবং সৈন্যদের মনোবল বাড়ানোর জন্য বাখমুত ফ্রন্ট লাইন পরিদর্শন করেছেন, সোশ্যাল মিডিয়ায় বলেছেন, ক্লিশচিভকা থেকে রাশিয়ানদের হটিয়ে দেয়া হয়েছে।

২০২২ সালের ফেব্রুয়ারিতে মস্কো তার পূর্ণমাত্রার আক্রমণ শুরু করার আগে ক্লিশচিভকায় প্রায় ৪০০ জনের বসত ছিল এবং এ বছরের জানুয়ারিতে রাশিয়ান সৈন্যরা এটি দখল করে নেয়।

 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ