• বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ০৭:৪০ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
যে কারনে ইউরোপের তিন দেশ ফিলিস্তিনকে স্বীকৃতি দিলো, রোহিঙ্গাদের খেয়ে ফেলতো খাদ্য উৎপাদন না বাড়লে, কুকুরের সাথে করতো কাড়াকাড়ি: ব্রি’র ডিজি বঙ্গবন্ধু শিল্পনগরী পরিবেশ রক্ষা করেই বাস্তবায়িত হবে ঘূর্ণিঝড় রিমালে ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে দাঁড়াতে শাবনূরের আহ্বান, আইএমও মহাসচিব ঢাকা সফরে আসছেন কাল নিউইয়র্কের রাস্তায় দেশের পতাকা হাতে মৌসুমী মাদক বিরোধী অভিযানে ৪শ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার, আটক ৩ তদবিরের টাকা ফেরত না পেয়ে পিটিয়ে হত্যা করলেন চাচা শ্বশুরকে, ভারতীয় অধিনায়কের স্ত্রীর সংহতি প্রকাশ ফিলিস্তিনিদের প্রতি  ঘূর্ণিঝড় রিমালে ক্ষতিগ্রস্ত বাঁধ দ্রুত মেরামতের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

খোঁজ মিলল কেজরিওয়ালের চুরি যাওয়া গাড়ির

আপডেটঃ : রবিবার, ১৫ অক্টোবর, ২০১৭

চুরি যাওয়ার দু’দিনের মাথায় খোঁজ মিলল দিল্লি­র মুখ্যমন্ত্রী তথা আম আদমি পার্টির নেতা অরবিন্দ কেজরিওয়ালের চুরি যাওয়া গাড়িটির। গাজিয়াবাদে পরিত্যক্ত অবস্থায় নীল রংয়ের ওয়াগন আর গাড়িটি পাওয়া গেছে। দু’দিন আগে গাড়িটি দিল্লি­র সচিবালয়ের বাইরে থেকে চুরি যায়। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

 

শনিবার উত্তরপ্রদেশের এক শীর্ষ পুলিশ কর্তা জানান, গাড়িটির খোঁজ পাওয়ার পরই দিল্লি পুলিশকে তা জানানো হয়। পরে দিল্লি­ পুলিশের একটি দল গাড়িটির ইঞ্জিন ও চ্যাসিস নম্বর যাচাই করে দেখে নিশ্চিত হয়। যদিও, গাড়িটি চুরির ঘটনায় এখন পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। সিসিটিভি ফুটেজ দেখে এ বিষয় তদন্ত চলছে বলে জানিয়েছে দিল্লি­ পুলিশ।

 

দিল্লি­র মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালের দিন-রাতের বাহন গাড়িটি গত বৃহস্পতিবার রাখা ছিল সচিবালয়ের সামনে। সেখান থেকেই গাড়িটি চুরি হয়েছিল। আম আদমি পাটির্র (আপ) বিদেশে থাকা এক সমর্থক গাড়িটি উপহার দিয়েছিলেন কেজরিওয়ালকে। ওই গাড়ি নিয়ে বার বার বহু দূরে গিয়েছেন দিল্লি­র মুখ্যমন্ত্রী। গিয়েছেন সরকারি কর্মসূচিতে, দলীয় প্রচারে, এমনকী বিক্ষোভ, সমাবেশেও। পথে কেজরির সর্বক্ষণের সঙ্গী ওই গাড়িটির নামই হয়ে গিয়েছিল ‘আপ মোবাইল’।

 

২০১৪-য় দিল্লি পুলিশের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ, অবস্থানে ওই গাড়িতেই ক্যাম্প বানিয়েছিলেন কেজরি। গাড়িতেই চলত খাওয়া, গাড়িতেই শোওয়া। রাতের ঘুম। ভিআইপি সংস্কৃতির বিরুদ্ধে প্রতিবাদের প্রতীক হিসেবেই গাড়িটিকে ব্যবহার করতেন কেজরিওয়াল। এই গাড়ি নিয়েই তার প্রথম নির্বাচনী প্রচারে যত্রতত্র ঘুরতেন কেজরিওয়াল। ২০১৩ সালে মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার পর সরকারি গাড়ি ব্যবহার করতে অস্বীকার করেছিলেন। এই গাড়িতেই চড়বেন বলে জানিয়ে দিয়েছিলেন কেজরিওয়াল।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ