• বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১০:২৯ অপরাহ্ন

‘ধোঁকা’ খেয়ে এবার আর্জেন্টিনার ম্যাচই বাতিল করে দিলো চীন

নিউজ ডেস্ক
আপডেটঃ : শনিবার, ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪
‘ধোঁকা’ খেয়ে এবার আর্জেন্টিনার ম্যাচই বাতিল করে দিলো চীন

হংকংয়ে ক্লাব-ফ্রেন্ডলি ম্যাচে গত ৪ ফেব্রুয়ারি মুখোমুখি হয়েছিল ইন্টার মিয়ামি। সেই ম্যাচে ১ মিনিটের জন্যও খেলতে নামেননি লিওনেল মেসি। অথচ বিশ্বকাপজয়ী এই আর্জেন্টাইনের খেলা দেখার জন্যই গ্যালারিতে ভিড় করছিলেন হাজার হাজার দর্শক।

কেউ মেসির জার্সি নম্বর সম্বলিত জামা, কেউ শুধু মেসির জাসি-নম্বর ১০ নিয়ে আসছিলেন। খেলা শুরুর আগেই তারা ‘মেসি মেসি’ বলে চীৎকার করছিলেন। অথচ সব দর্শককে এক রকম ধোঁকাই দিলেন মিয়ামি কোচ। মেসির সঙ্গে মিয়ামির আরেক তারকা লুইস সুয়ারেজকেও খেলাননি তিনি।

মিয়ামি কোচের ‘ধোঁকা’ খাওয়ার পর এবার সতর্ক অবস্থান নিয়েছে চীন। আগামী মাসে হ্যাংজুুতে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া আর্জেন্টিনার দুটি ফ্রেন্ডলি ম্যাচ বাতিল করে দিয়েছে সেখানকার স্পোর্টস ব্যুরো। এসব ম্যাচে অধিনায়ক হিসেবে খেলার কথা ছিল মেসির।

মার্চের ১৮ থেকে ২৬ তারিখের মধ্যে এসব ম্যাচ হওয়ার কথা। এর মধ্যে আর্জেন্টিনার প্রথম ম্যাচ নাইজেরিয়ার বিপক্ষে, হ্যাংজুতে। আরেকটি ম্যাচ আইভরি কোস্টের বিপক্ষে, বেইজিংয়ে। গতকাল শুক্রবার দুটি ম্যাচই বাতিল করে দিয়েছে চীনের কর্তৃপক্ষ।

ম্যাচ বাতিল সংক্রান্ত এক বিবৃতিতে হ্যাংজুর স্পোর্টস ব্যুরো বলেছে, ‘কারণগুলো সবারই জানা যে, আমরা তত্ত্বাবধানকারী কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে জেনেছি, ম্যাচটি আয়োজনের ক্ষেত্রে বেশকিছু সমস্যা হয়েেছে। প্রস্তুতি ভালোভালো নেওয়া যায়নি। এখন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, ম্যাচটি বাতিল করা হবে।’

আইভরি কোস্টের বিপক্ষে ম্যাচ নিয়ে একই ধরনের কথা বলেছে দেশটির মুখপাত্র অ্যানি-ম্যারি এন’গুসেন। ম্যাচ আয়োজন না করার বিষয়ে গতকালই বার্তা সংস্থা এপিকে এক কথা জানানো হয়েছে।

এর আগে মেসি না খেলায় দুঃখ প্রকাশ করেছে ইন্টার মিয়ামি। বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে পাঠানো এক বিবৃতিতে ক্লাবটি বলেছে, ‘আমাদের দৃঢ় ইচ্ছে থাকা সত্ত্বেও (আমরা তাদের খেলাতে পারিনি)। আমরা বুঝতে পেরেছিে যে, রোবারের ম্যাচে লিওনেল মেসি এবং লুইস সুয়ারেজের অনুপস্থিতিতে সবাই হতাশ হয়েছে। আমরা দুঃখিত যে দুই খেলোয়াড় অংশ নিতে পারেনি।

‘আমরা এটাও স্বীকার করি যে, দেরিতে সিদ্ধান্ত নেওয়া আমাদের হংকং সমর্থক ও ইভেন্ট আয়োজক টেটলার এশিয়ার মধ্যে হতাশা সৃষ্টি করেছে। আমরা এটা প্রকাশ করার প্রয়োজন মনে করি যে, দুর্ভাগ্যবশত ইনজুরি খেলার একটি অংশ, আমাদের খেলোয়াড়ের স্বাস্থ্যকে সবার আগে গুরুত্ব দেওয়া উচিত।’

মিয়ামি বিবৃতিতে আরও জানায়, ‘ফুটবলে খেলোয়াড়রা ইনজুরি হন এবং এটি কারও দোষ নয়। এটি সুন্দর খেলার একটি অংশ যা নিষ্ঠুর এবং এই উপলক্ষ আমাদের হংকং সফরকে প্রভাবিত করেছে। যেহেতু আমরা বিভিন্ন স্টেকহোল্ডারদের কাছ থেকে নেতিবাচক মন্তব্য গ্রহণ করতে থাকি, আমরা এই ধরনের খেলার ইনজুরির বাস্তবতার বিষয়টি পুনরায় উল্লেখ করাটা বাধ্যমূলক বলে মনে করি।’

Share Button


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ

You cannot copy content of this page

You cannot copy content of this page