• সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ০৭:৫৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
আজ পবিত্র ঈদুল আজহা নিউইয়র্কে সেইভ দ্য পিপল’র উদ্যোগে হালাল খাদ্য সামগ্রী বিতরণ সেন্ট মার্টিনের নিরাপত্তা নিয়ে স্বার্থান্নেষী মহল গুজব ছড়াছে : আইএসপিআর মুসলিম বিশ্ব নিরানন্দে ঈদ উদযাপন করছে : এরদোয়ান ছেলে জয়ের নামে ছাগল কোরবানি দেবেন অপু, বুবলী দিচ্ছেন গরু ধারণক্ষমতার অতিরিক্ত যাত্রী নিয়ে যাওয়ার পথে লঞ্চ আটকে দিলেন ম্যাজিষ্ট্রেট সোনাতলা পৌরসভায় ভিজিএফের এর চাল বিতরণ শেষ লগ্নে জমে উঠেছে কলকাতার পশুর হাট, কদর বেড়েছে দুম্বা ও খাসির প্রধানমন্ত্রীর প্রচেষ্টায় সেনাবাহিনী বিশ্ব-দরবারে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়েছে : সেনা প্রধান বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ বেড়ে ১৯ বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়েছে।

উল্লাপাড়ায় ডায়রিয়ায় শিশু রোগী বাড়ছে রোটা ভাইরাস এর মূল কারণ

আপডেটঃ : রবিবার, ২৮ জানুয়ারী, ২০১৮

উল্লাপাড়া (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি ॥
সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় কম বয়সী শিশুদের মাঝে ডায়রিয়া রোগ দেখা দিয়েছে। একের পর এক সরকারি হাসপাতালে এ রোগীদের ভিড় বাড়ছে।
আজ রোববার উপজেলা সদরের কাওয়াক ৩০শয্যা হাসপাতালে ৮ জন ও পূর্ণিমাগাঁতী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ২ জন রোগীর চিকিৎসা চলছে। কাওয়াক হাসপাতালে ভর্তিরা হল- আশিক (৮ মাস), আলো (৭ মাস), মরিয়ম (১৭ মাস), বারিক (১১ মাস), খুশি (৮ মাস), রোহান (১০ মাস), ইসমাইল (১ বছর), আশিক (১০ মাস) ও পূর্ণিমাগাঁতী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ভর্তি ২ জন হল- আবু তালহা (৯ মাস) ও সাদিক (১৭ মাস)।
গত ৩ দিনে উপজেলার দু’টি সরকারি হাসপাতালে কমপক্ষে ৪০ জন ডায়রিয়া রোগীকে ভর্তি ও চিকিৎসা সেবা দেওয়া হয় বলে হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়। হাসপাতালের চিকিৎসকদের বক্তব্যে রোটা ভাইরাস এই ডায়রিয়ার মূল কারণ।
রোববার উল্লাপাড়া ৩০শয্যা হাসপাতালে গিয়ে দেখা যায়, সেখানে মোট ৮ জন ডায়রিয়ায় আক্রান্ত শিশু ভর্তি রয়েছে। হাসপাতালে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. সামিউল ইসলাম জানান, গত ২ দিনে এই হাসপাতালে কমপক্ষে ২০ জন শিশু রোগীকে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। প্রচন্ড শীতের কারণে বিশেষতঃ শিশুরা রোটা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে আসছে। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) মেহেদী হাসান জানান, এ হাসপাতালে গত ক’দিনে বেশ সংখ্যক ডায়রিয়া রোগীর চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। এদের প্রায় সবাই শিশু। প্রতিদিন ডায়রিয়া আক্রান্ত শিশুদের চিকিৎসায় অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে। হাসপাতালের চিকিৎসকরা জানান, এ রোগের প্রয়োজনীয় ওষুধ হাসপাতালে রয়েছে। তবে ২/১টি ওষুধ রোগীর অভিভাবকেরা বাইরে থেকে সংগ্রহ করছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ