• বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ০১:২৪ পূর্বাহ্ন

বনবাড়িয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ত্রিপল চটের ছাউনিতে চলে ক্লাস

আপডেটঃ : সোমবার, ৫ ফেব্রুয়ারী, ২০১৮

উল্লাপাড়া(সিরাজগঞ্জ)প্রতিনিধ্॥ি
সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় প্রায় ১শ ১৩ বছর বয়সি বনবাড়িয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালযের শিক্ষার্থীদেরকে গাছতলায় ত্রিপল চটের ছাউনিতে ক্লাস করতে হচ্ছে। প্রায় ১৪ বছর আগে বিদ্যালয়ের মূল ভবন ঝুকিপূর্ন ঘোষনা হয়েছে। এ বিদ্যালয়ে নতুন ভবন নির্মান কাজ ১০ বছর ধরে বন্ধ রয়েছে। বিদ্যালয়ের জায়গা নিয়ে বিরোধেই নির্মান কাজ বন্ধ আছে। আরেক জায়গায় বিদ্যালয় ভবন নির্মান পরিকল্পনা হলেও বাস্তবায়নের কাজ কিছুই এগোয়নি বলে জানা যায়।
উল্লাপাড়া উপজেলার  সলঙ্গা ইউনিয়নের বনবাড়িয়া গ্রামে ১৯০৫ সালে এ বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করা হয়। সে সময় বিদ্যালয়টির নামে দান করা জমিতেই এটি প্রতিষ্ঠা হয়। বিগত ১৯৬৫ সালে বিদ্যালয়টিতে পাকা একটি ভবন নির্মান করা হয়। বনবাড়িয়াসহ আশে পাশের বেশক’টি গ্রামের ছেলে মেয়ে বিদ্যালয়টিতে লেখাপড়া করে। বিগত ২০০৪ সালে ভবনটি ঝুকিপূর্ন জানিয়ে ব্যবহার অনুপযোগি ঘোষনা করা হয় বলে জানা গেছে। এরপরও দীর্ঘদিন ঝুকিপূর্ন ভবনেই পাঠ দান কার্যক্রম চলে।  এদিকে স্বানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগের আওতায় বিগত ২০০৮ সালে এ বিদ্যালয়ের জন্য নতুন একটি ভবন নির্মান কাজ শুরু হলেও বিজ্ঞ আদালতের নিষেধাজ্ঞায় তা নির্মান বন্ধ রাখা হয়। এমনাবস্থায় গত ক’বছর ধরে বিদ্যালয় মাঠে ত্রিপল চটের দু’টি ছাউনি বানিয়ে ও পরিত্যাক্ত ভবনের পাশে টিনের বারান্দা বানিয়ে এর নিচে শিক্ষার্থীদের পাঠদান কার্যক্রম চলছে। প্রাকৃতিক দূর্যোগ হলেই শিক্ষার্থীরা এদিক সেদিক ছোটাছুটি করে বলে জানা যায়। গত ক’মাস আগে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রনালয়ে যুগ্ন সচিব আব্দুল মান্নান পরিদর্শন করেন। এদিকে বনবাড়িয়া গ্রামের মোঃ তোরাফ আলী গত ক’দিন আগে বিদ্যালয়টির নামে ১৯ শতক জায়গা লিখে দিয়েছেন বলে জানানো হয়।
বনবাড়িয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বর্তমান শিক্ষাথী সংখ্যা ১শ ৫৩ জন ও ৭জন শিক্ষক আছেন। প্রধান শিক্ষক মোছাঃ মাহমুদা খাতুন জানান- বিভিন্ন সময়ে প্রাকৃতিক দূর্যোগে শিক্ষার্থীদের পাঠদান কার্যক্রম ব্যহত হয়। এমনাবস্থায় শিক্ষার্থী সংখ্যা কমে আসছে।  এ বিদ্যালয়ে  ম্যানেজিং কমিটির সদস্য ইউপি মেম্বার মোঃ মামুন জানান বিদ্যালয় ভবনের সমস্যা অনেক দিনের। এর জরুরী ভাবে  সমাধান দরকার রয়েছে। তারা মিলিত চেষ্টা চালাচ্ছেন।
ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি হাজী এনামূল হক বলেন- বিদ্যালয়ের সমস্যা সমাধানের জোরালো চেষ্টা চলছে। তিনি আশাবাদী  অচিরেই সমস্যার সমাধান হবে।
উল্লাপাড়া উপজেলা শিক্ষা অফিস সূত্রে, বিদ্যালয়টির শিক্ষার্থীদেরকে বেশ কষ্ট- দূর্ভোগের মাঝেই পড়া লেখা করতে হচ্ছে। এ বিদ্যালয়ে নতুন ভবন নির্মানে অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। যা অচিরেই বাস্তবায়ন হবে।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আরিফুজ্জামান বলেন, এ বিদ্যালয়ের ভবন নির্মানে নতুন জায়গা পাওয়া গেছে। এখন ভবন নির্মানে জোরালো পদক্ষেপ নেয়া হবে। যা হলে শিক্ষার্থীদের দীর্ঘদিনের দূর্ভোগ, সমস্যা সবই সমাধান হবে।
উল্লাপাড়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এ্যাডভোকেট মারুফ বিন হাবিব বলেন বনবাড়িয়া বিদ্যালয়টির সমস্যা তিনি জেনেছেন। এর সমাধানে বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। অনেক দিন থেকেই সমস্যা সমাধানে জোরালো চেষ্টা চালানো হচ্ছে। জায়গা পাওয়ার পর ভবনের সমস্যা সমাধানে দ্রুত পদক্ষেপ নেয়া হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ