• বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ০৮:৩৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
যে কারনে ইউরোপের তিন দেশ ফিলিস্তিনকে স্বীকৃতি দিলো, রোহিঙ্গাদের খেয়ে ফেলতো খাদ্য উৎপাদন না বাড়লে, কুকুরের সাথে করতো কাড়াকাড়ি: ব্রি’র ডিজি বঙ্গবন্ধু শিল্পনগরী পরিবেশ রক্ষা করেই বাস্তবায়িত হবে ঘূর্ণিঝড় রিমালে ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে দাঁড়াতে শাবনূরের আহ্বান, আইএমও মহাসচিব ঢাকা সফরে আসছেন কাল নিউইয়র্কের রাস্তায় দেশের পতাকা হাতে মৌসুমী মাদক বিরোধী অভিযানে ৪শ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার, আটক ৩ তদবিরের টাকা ফেরত না পেয়ে পিটিয়ে হত্যা করলেন চাচা শ্বশুরকে, ভারতীয় অধিনায়কের স্ত্রীর সংহতি প্রকাশ ফিলিস্তিনিদের প্রতি  ঘূর্ণিঝড় রিমালে ক্ষতিগ্রস্ত বাঁধ দ্রুত মেরামতের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

ইরাকে আইএসের গুরুত্বপূর্ণ হাওয়াইজা ঘাঁটির পতন

আপডেটঃ : বৃহস্পতিবার, ৫ অক্টোবর, ২০১৭

জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেটের (আইএস) কাছ থেকে হাওয়াইজার পুনর্দখল নিয়েছে ইরাকি বাহিনী। এর মধ্য দিয়ে দেশটিতে আইএসের গুরুত্বপূর্ণ আরও একটি ঘাঁটির পতন ঘটল।

বৃহস্পতিবার ইরাকি বাহিনী হাওয়াইজা পুনর্দখলের দাবি করে। খবর এএফপি ও রয়টার্সের।

ইরাকের পশ্চিম সীমান্তের পাশে বিস্তীর্ণ এলাকাটিতে এই একটি শহরই আইএসের নিয়ন্ত্রণে ছিল। শহরটি ইরাকের তেলসমৃদ্ধ শহর কিরকুকের নিকটবর্তী।

হাওয়াইজার নিয়ন্ত্রণ হারানোর পর আইএস এখন ইরাকের পশ্চিমাঞ্চলীয় সীমান্ত শহর আল কায়িম ও এর আশপাশের এলাকাগুলো নিয়ন্ত্রণ করছে।  এছাড়া সীমান্তের ওপারে সিরিয়ার কিছু অংশও তাদের নিয়ন্ত্রণে আছে।

রাজধানী বাগদাদের উত্তরাঞ্চলীয় হাওয়াইজা থেকে আইএসকে হটাতে ২১ সেপ্টেম্বর অভিযান শুরু করে যুক্তরাষ্ট্র-সমর্থিত ইরাকি সরকারি সেনা ও ইরান-সমর্থিত শিয়া মিলিশিয়ারা।

এ অভিযানের নেতৃত্ব দেন লেফটেন্যান্ট জেনারেল আবদেল আমির ইয়ারাল্লাহ।

বৃহস্পতিবার তিনি এক বিবৃতিতে বলেন, সেনাবাহিনীর নবম আর্মড ডিভিশন, ফেডারেল পুলিশ, ইমার্জেন্সি রেসপন্স ডিভিশন এবং শিয়া মিলিশিয়ারা হাওয়াইজাকে মুক্ত করেছে।

আইএসের বিরুদ্ধে ইরাকি বাহিনীর অগ্রযাত্রা অব্যাহত রয়েছে বলে জানান এই জেনারেল।

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালের জুনে জঙ্গিগোষ্ঠী আইএসের উত্থান ঘটে। তারা ইরাক ও সিরিয়ার বিস্তীর্ণ অঞ্চলজুড়ে কথিত খেলাফতের ঘোষণা দেয়।

তবে গত বছর থেকে দুই দেশেই কোণঠাসা হয়ে পড়ে আইএস। বিশেষ করে নয় মাসের লড়াইয়ের পর এ বছরের জুলাই মাসে যুক্তরাষ্ট্র-সমর্থিত ইরাকি বাহিনীগুলো মসুল পুনরুদ্ধার করলে জঙ্গিগোষ্ঠীটি ধসে পড়ে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ