• মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ০৫:৫৩ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
জনদুর্ভোগ, ধ্বংস বা রক্তপাত ঘটালে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনি দায়িত্ব পালন করবে -স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এবার বেইলি রোড অবরোধ করলো ভিকারুননিসার ছাত্রীরা বগুড়া আজিজুল হক কলেজে ককটেল বিস্ফোরণ, আহত ৪ কোটা সংস্কারের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে অচল ঢাকা রাজসিক আয়োজনে এমবাপ্পেকে বরণ করতে প্রস্তুত বার্নাব্যু ওমানের রাজধানী মাস্কাটে বন্দুক হামলায় নিহত ৪ আপিল বিভাগের রায় পর্যন্ত অপেক্ষা করেন : ব্যারিস্টার সুমন শেষ হচ্ছে শাওন-পাওলিদের ‘নীল জোছনা’ সিনেমার শুটিং মুক্তিযোদ্ধাদের সর্বোচ্চ সম্মান দিতে হবে: শেখ হাসিনা কোটা আন্দোলন: ঢাকা-রাজশাহী মহাসড়ক অবরোধ করে রেখেছেন শিক্ষার্থীরা

খালেদার স্থায়ী জামিন নামঞ্জুর, ৯ নভেম্বর শুনানি

আপডেটঃ : বৃহস্পতিবার, ২ নভেম্বর, ২০১৭

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় আদালতে তৃতীয় দিনের মতো আত্মপক্ষ সমর্থন করে বক্তব্য দিয়েছেন বিএনপির চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া। এ মামলার পরবর্তী তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে ৯ নভেম্বর।
আজ বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সাবেক প্রধানমন্ত্রী বকশীবাজারের আলিয়া মাদ্রাসা মাঠের বিশেষ আদালতে পৌঁছান। আদালতে হাজিরা দেওয়ার পর তাঁর আইনজীবীরা স্থায়ী জামিনের আবেদন করেন। পরে এই আবেদনের ওপর শুনানি শুরু হয়। শেষে বিচারক স্থায়ী জামিনের আবেদন নাকচ করে দিয়ে মামলার আগামী শুনানির দিন পর্যন্ত জামিন মঞ্জুর করেছেন।

আজ খালেদা জিয়ার আইনজীবী এ দুটি মামলার নয়জনের পুনর্জেরা ও দুজনের জেরা-সংক্রান্ত এবং মামলাটি স্থগিত চেয়ে করা আবেদন হাইকোর্টের আপিল বিভাগে বিচারাধীন অবস্থায় রয়েছে বলে আদালতকে অবহিত করেন। সেই পরিপ্রেক্ষিতে আপিল বিভাগের আবেদনের নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত বিশেষ আদালতে মামলার কার্যক্রম স্থগিত রাখার আবেদন করা হয়। কিন্তু ঢাকার ৫ নম্বর বিশেষ আদালতের বিচারক ড. আখতারুজ্জামান খালেদা জিয়ার সেই আবেদনও নামঞ্জুর করে দেন।
এরপর দুপুর ১টার দিকে বিএনপির চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া আত্মপক্ষ সমর্থন করে আদালতে বক্তব্য উপস্থাপন শুরু করেন। তিনি ১৫ মিনিটের মতো আত্মপক্ষ সমর্থন করে বক্তব্য দেওয়ার পর মুলতবি প্রার্থনা করেন।
এর আগে গত ১৯ অক্টোবর জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলার প্রধান আসামি আত্মপক্ষ সমর্থনে আদালতে এক ঘণ্টাব্যাপী বক্তব্য দেন। বক্তব্যে সাবেক এ প্রধানমন্ত্রী মামলাটিতে তিনিসহ অন্য আসামিদের বিরুদ্ধে আনা সব অভিযোগ মিথ্যা-বানোয়াট বলে অভিহিত করে বিচার বিভাগ ও দেশের চলমান অবস্থার বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন।
এতিমদের জন্য বিদেশ থেকে আসা ২ কোটি ১০ লাখ ৭১ হাজার ৬৭১ টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলাটি দায়ের করে দুদক। ২০০৮ সালের ৩ জুলাই রমনা থানায় এই মামলাটি দায়ের করা হয়। ২০০৯ সালের ৫ আগস্ট দুদক আসামিদের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে।
অভিযোগপত্রে খালেদা জিয়ার বড় ছেলে তারেক রহমান, সাবেক এমপি কাজী সালিমুল হক কামাল ওরফে ইকোনো কামাল ও ব্যবসায়ী শরফুদ্দিন আহমেদ, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সাবেক সচিব ড. কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী ও প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ভাগ্নে মমিনুর রহমানকে আসামি করা হয়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ