• সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ০৬:৪৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
নিউইয়র্কে সেইভ দ্য পিপল’র উদ্যোগে হালাল খাদ্য সামগ্রী বিতরণ সেন্ট মার্টিনের নিরাপত্তা নিয়ে স্বার্থান্নেষী মহল গুজব ছড়াছে : আইএসপিআর মুসলিম বিশ্ব নিরানন্দে ঈদ উদযাপন করছে : এরদোয়ান ছেলে জয়ের নামে ছাগল কোরবানি দেবেন অপু, বুবলী দিচ্ছেন গরু ধারণক্ষমতার অতিরিক্ত যাত্রী নিয়ে যাওয়ার পথে লঞ্চ আটকে দিলেন ম্যাজিষ্ট্রেট সোনাতলা পৌরসভায় ভিজিএফের এর চাল বিতরণ শেষ লগ্নে জমে উঠেছে কলকাতার পশুর হাট, কদর বেড়েছে দুম্বা ও খাসির প্রধানমন্ত্রীর প্রচেষ্টায় সেনাবাহিনী বিশ্ব-দরবারে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়েছে : সেনা প্রধান বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ বেড়ে ১৯ বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়েছে। সরকার বিদেশের ওপর নির্ভর করে ক্ষমতায় আছে : মির্জা ফখরুল

বিদায়ের দ্বারপ্রান্তে পাকিস্তান, দলে পরিবর্তন চান ওয়াসিম

নিউজ ডেস্ক
আপডেটঃ : সোমবার, ১০ জুন, ২০২৪
ছবি: ফেসবুক

চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারতের বিপক্ষে হাতের মুঠোয় থাকা ম্যাচ বাজেভাবে হেরে যাওয়াটা কোনো ভাবেই মেনে নিতে পারছেন না পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক ওয়াসিম আকরাম। কিংবদন্তি এই বোলার মোহাম্মদ রিজওয়ান, ফখর জামান, ইফতিখার আহমেদদের ব্যাটিংয়ের সমালোচনা করে বলেছেন, সময় হয়েছে পুরো দলে পরিবর্তন আনার।

নিউ ইয়র্কে রোববার দারুণ বোলিংয়ে ভারতকে ১১৯ রানে গুটিয়ে দেয় পাকিস্তান। কিন্তু ব্যাটিং ব্যর্থতায় শেষ পর্যন্ত ৬ রানে হেরে বসে ম্যাচ। এই হারে দল চলে গেছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায়ের দ্বারপ্রান্তে।

অথচ একটা পর্যায়ে এদিন সহজ জয়ের পথেই ছিল পাকিস্তান। ৩৬ বলে দরকার ছিল ৪০ রান, হাতে তখনও ৭ উইকেট। উইকেটে ছিলেন থিতু হওয়া রিজওয়ান। এরপর জাসপ্রিত বুমরাহকে আড়াআড়ি ব্যাটে খেলতে গিয়ে বোল্ড হয়ে ফেরেন এই কিপার-ব্যাটার। সেই যে ধ্বসের শুরু, এরপর আর ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি দলটি। অসহায় আত্মসমর্পণ করে দলটির মিডল অর্ডার।

স্টার স্পোর্টসে আলাপকালে দলের এমন ব্যাটিং নিয়ে চরম বিরক্তি প্রকাশ করেন ওয়াসিম। রিজওয়ানের খেলার জ্ঞান নেই বলে মন্তব্য করেন তিনি। এমন পরিস্থিতিতে বুমরাহর মতো বোলারকে এমন শট খেলা নির্বোধের পরিচয় বলে মনে করেন তিনি।

“তারা ১০ বছর ধরে ক্রিকেট খেলছে, আমি তাদের শেখাতে পারি না। রিজওয়ানের ম্যাচ সচেতনতা নেই। তার জানা উচিত ছিল যে বুমরাহকে উইকেট নেওয়ার জন্য বল দেওয়া হয়েছিল এবং বুদ্ধিমানের কাজ হলো, তার ডেলিভারিগুলো সাবধানতার সঙ্গে খেলা। কিন্তু রিজওয়ান বড় শট মারতে গিয়ে উইকেট হারায়।”

রিজওয়ানের সমালোচনা করেছেন পাকিস্তানের আরেক গ্রেট পেসার ও দলটির সাবেক কোচ ওয়াকার ইউনিসও।

“ম্যাচ ছিল হাতের মুঠোয়, বলের সমান রান ছিল। মোহাম্মদ রিজওয়ানের ওই শটটা খুব সাধারণ ছিল এবং যখন সে ওই শটটা খেলে আউট হয়ে গেল, আমি জানতাম বিশেষ কিছু হতে চলেছে কারণ আমরা বুমরাহ ও সিরাজের সামর্থ্য সম্পর্কে জানি।”

রিজওয়ানের আগে দ্রুত কিছু রান তোলার চেষ্টায় হার্দিক পান্ডিয়ার বাউন্সারে উইকেটের পেছনে ধরা পড়েন ফখর জামান। যা একদমই পছন্দ হয়নি ওয়াসিমের। আর রিজওয়ানের পর ম্যাচটা টেনে নেওয়া উচিত ছিল ইতফিখারের। কিন্তু উইকেটে ধুঁকছিলেন তিনিও। শেষ পর্যন্ত বুমরাহর ফুলটস লেগ সাইডে আকাশে তুলে দৃষ্টিকটু আউট হন ইফতিখার। তার ব্যাটিং জ্ঞান নিয়েই প্রশ্ন তোলেন ওয়াসিম।

“ইফতিখার আহমেদ লেগ সাইডে একটা শটই খেলতে জানে। সে বছরের পর বছর ধরে দলের অংশ, কিন্তু কীভাবে ব্যাট করতে হয় তা জানে না। আমি গিয়ে ফাখার জামানকে ম্যাচ সচেতনতার কথা বলতে পারব না।‘

দল খারাপ খেললে পাকিস্তানের কোচ বদলের ইতিহাস বেশ পুরোনো। এই ধারায় পরিবর্তন চান ওয়াসিম। পরিবর্তন চান দলে।

‘পাকিস্তানি খেলোয়াড়রা মনে করেন, তারা ভালো পারফর্ম করতে না পারলে কোচদের বরখাস্ত করা হবে, তাদের কিছুই হবে না। এখন সময় এসেছে কোচ ধরে রেখে পুরো দলে পরিবর্তন আনার।”


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ