• বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০১:৩০ অপরাহ্ন

সরিষাবাড়ীর এমপি মামুনুর রশিদ জোয়ার্দারের দুর্নীতির অভিযোগে দলীয় নেতাকর্মীদের সংবাদ সম্মেলন

আল ইসলাম কায়েদ
আপডেটঃ : সোমবার, ২৫ ডিসেম্বর, ২০১৭

সরিষাবাড়ী (জামালপুর) প্রতিনিধি॥
জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলার জাতীয় পার্টির এমপি মামুনুর রশিদ জোয়ার্দারের বিরুদ্ধে অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগ করেছেন দলীয় নেতাকর্মীরা। সোমবার দুপুরে উপজেলা জাতীয় পার্টির কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করা হয়। উপজেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আবুল কালাম আজাদ এতে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন। এ সময় তিনি এমপির বিরুদ্ধে বিএনপি-জামায়াতের পৃষ্টপোষকতার অভিযোগ করেন।
উপজেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি আবুল কালাম আজাদ বলেন, ‘এমপি মামুনুর রশিদ জোয়ার্দার জাতীয় পার্টির মনোনিত হলেও দলের বিরুদ্ধে কাজ করছেন। নির্বাচিত হয়ে কোন জাতীয় দিবস বা উপজেলার কোন কর্মসূচীতে তাঁকে দেখা যায়নি। এমপির ছোটভাই পৌর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক এনাম জোয়ার্দার এলাকায় ‘ছায়া এমপি’র দায়িত্ব পালন করেন। সরকারি টিআর, জিআর, কাবিখা, সোলার, আনন্দ স্কুল ও জেলা পরিষদ প্রকল্পের টাকা আত্মসাৎ ও ডিও লেটার বিক্রি করে অঢেল টাকার মালিক হয়েছেন।’
এদিকে সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগ একাত্মতা ঘোষণা করেন। উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ ছানোয়ার হোসেন বাদশা জানান, ‘এমপি মামুনুর রশিদ জোয়ার্দার জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে একাধিকবার কটুক্তি করেন। মহাজোটের মনোনয়নে নির্বাচিত হলেও তিনি মহাজোটের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছেন।’
সংবাদ সম্মেলনে আরো বক্তব্য রাখেন জেলা জাতীয় পার্টির সহ-সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা অ্যাড. মোজাম্মেল হক. উপজেলা জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সাত্তার, সহ-সভাপতি লুৎফর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যক্ষ মাসুদুর রহমান ও পৌর জাতীয় পার্টির আহ্বায়ক আলহাজ আসাদুল্লাহ। আওয়ামী লীগ নেতাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা এমএ লতিফ, সাংগঠনিক সম্পাদক আনিছুর রহমান এলিন, অর্থ সম্পাদক আলহাজ মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তাক, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান মিজু প্রমুখ। তারা জানান, ‘মামুনুর রশিদ জোয়ার্দার এমপি হওয়ার আগে একটি মাদ্রাসার অফিস সহকারী ছিলেন। দুর্নীতির দায়ে তিনি চাকুরী হারিয়ে সামান্য পাথর ব্যবসায়ী হন। নির্বাচিত হয়ে কয়েক বছরেই তিনি নিজবাড়িতে বহুতল ভবন নির্মাণ, আরামনগর বাজারে মার্কেট নির্মাণ, জামালপুর শহরে ডিজিটাল ক্লিনিক সম্পন্ন এবং টাঙ্গাইল শহরে ২০ কাঠা জমি ক্রয় ও ২২ কাঠা জমিতে বিলাসবহুল বাড়ি নির্মাণ করছেন। এছাড়া কক্সবাজারে ফাইভ স্টার হোটেল ও রাজধানীর আমেরিকান প্লাজায় বহুতল ভবন নির্মাণ করছেন।’
সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত আওনা ইউনিয়নের সাবেক সংরক্ষিত মহিলা সদস্য সাকেরা বেগম অভিযোগ করেন, ‘সংসদ সদস্য তাঁর ছোটভাইয়ের মাধ্যমে প্রতিটি ডিও লেটার ১-২ লাখ টাকায় বিক্রি করেন। আওনা ইউনিয়নে দুই কিলোমিটার বিদ্যুৎ বরাদ্দের ডিও লেটার দিতে এমপি ও তাঁর ছোট ভাই এনাম জোয়ার্দার আমার কাছ থেকে এক লাখ ২৬ হাজার টাকা উৎকোচ নেন।’
জানা গেছে, ইতোপূর্বে মামুনুর রশিদ জোয়ার্দারের দুর্নীতির প্রতিবাদে একাধিকবার তাঁকে দল থেকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করা হয়। এছাড়া আওয়ামী লীগ ও জাতীয় পার্টি যৌথভাবে তাঁর কুশপুত্তলিকা দাহ ও জাগ্রত-৭১ নামে একটি সংগঠন জুতা মিছিল করে।
এ ব্যাপারে সংসদ সদস্য মামুনুর রশিদ জোয়ার্দারের বক্তব্য জানতে একাধিকবার তাঁর মুঠোফোনে চেষ্টা করা হলেও তিনি রিসিভ করেননি।

Share Button


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ

You cannot copy content of this page

You cannot copy content of this page