প্রকৃতিতে বইছে শীতল হাওয়া। বাংলাদেশে এই সময়টাকে বলা হয় বিয়ের মৌসুম। এরমধ্যেই অনেক পরিবারে শুরু হয়েছে বিয়ের আয়োজন। বাঙালি নারী ও শাড়ি সেই আবহমান কাল থেকেই অঙ্গাঙ্গিভাবে জড়িত। বিশেষ মুহূর্তের এই শাড়ির সাথে জড়িয়ে থাকে অনেক মধুর স্বপ্নস্মৃতি। বর্তমানে বিয়ের কনে এবং অনুষ্ঠানে আসা নারীদের কাছে লেহেঙ্গাও রয়েছে পছন্দের শীর্ষে। বিয়ের এই মাহেন্দ্রক্ষণকে উপলক্ষ করে গুলশান-১-এ অভিজাত ফ্যাশন হাউস প্রেম’স কালেকশন সম্প্রতি বাঙালি বর-কনের পোশাকের এক্সক্লুসিভ কালেকশন নিয়ে আয়োজন করেছিল ওয়েডিং ফ্যাশন শো ‘নিকাহ’। রাজকীয় বর্ণিল এই আয়োজনে বিয়ের শাড়ি এবং লেহেঙ্গার সাথে ডায়মন্ড ওয়ার্ল্ডের গহনায় নিজেকে জড়িয়ে আবহমান বাংলার বিয়ের কনের নানা রূপ তুলে ধরেন ঢালিউড সুপারস্টার অপু বিশ্বাস, ইমন, শবনম ফারিয়া, নাদিয়া, তানজিন তিশাসহ বাংলাদেশের শীর্ষ মডেল ও অভিনেত্রীরা।

 

উপমহাদেশের এক্সক্লুসিভ বিয়ের শাড়ি ও লেহেঙ্গায় অপু বিশ্বাসকে মনে হচ্ছিল অনন্য। সানাইয়ের শব্দমূর্ছনায় শাড়ি ও লেহেঙ্গা পরা কনেদের সৌন্দর্যে বিমোহিত দর্শকরা অপলক হয়েছিলেন।

 

ওয়েডিং ফ্যাশন শোয়ের এক পর্যায়ে প্রেম’স কালেকশনের ডিরেক্টর প্রেম লাল ভামবানি শুভেচ্ছা বক্তব্যে তার ডিজাইন করা লেহেঙ্গা ও শাড়ির বর্ণনা দেন। তিনি বলেন, সবাই চায় বিয়ের শাড়ি বা লেহেঙ্গাটা হবে এক্সক্লুসিভ। এটি একটি স্বপ্ন। এই স্মৃতিময় স্বপ্ন বোনা সাধারণ কারিগর দ্বারা সম্ভব নয়। অনেকগুলো অতি দক্ষ হাতের ছোঁয়ায় তৈরি হয় একটি বিয়ের শাড়ি বা লেহেঙ্গা। আমাদের রয়েছে এমন অতি দক্ষ এক ঝাঁক স্বপ্ন বোনার কারিগর। এখন থেকে বিয়ের পোশাকের দায়িত্ব আমাদের ওপর ছেড়ে দিন। আমার ডিজাইন করা বিয়ের লেহেঙ্গা ও শাড়ি কিনতে অতিরিক্ত সময় ও টাকা খরচ করে অনেকেই ভারতের বিভিন্ন রাজ্যে যান। তাদের কথা মাথায় রেখে বাংলাদেশে এক ছাদের নিচে আমার ডিজাইনসহ ভারতীয় উপমহাদেশের এক্সক্লুসিভ সব ডিজাইনের শাড়ি, লেহেঙ্গা, শেরওয়ানি এবং বিয়ের অন্যান্য পোশাক নিয়ে আমরা করেছি বিশেষ আয়োজন।

 

বাংলাদেশ এবং ভারতীয় উপমহাদেশের এক্সক্লুসিভ বিয়ের শাড়ি, লেহেঙ্গা, গাউন, শেরওয়ানি ছাড়াও বিয়ের অনুষ্ঠানে আগত অতিথিদের পোশাকও প্রদর্শন করা হয়। এছাড়াও ডায়মন্ড ওয়ার্ল্ডের এক্সক্লুসিভ বিয়ের গহনাও অনুষ্ঠানে আগত অতিথিদের নজর কেড়েছে।
Share Button